Sunday, April 26, 2020

অত্যাধুনিক হ্যান্ডগ্লাভস তৈরি করে 1000 ডলার পুরস্কার পেলেন নদীয়ার এক ছাত্র



বর্তমানে করোনা ভাইরাস রীতিমতো সারাবিশ্বে সঙ্কট সৃষ্টি করেছে দিন দিন বেড়েই যাচ্ছে আক্রান্ত এবং মৃত্যুর সংখ্যা গোটা বিশ্বে এখন উঠে পড়ে লেগেছে কীভাবে এই করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ রোখা যায় তা নিয়ে আর এই করোনা ভাইরাসের সংক্রমনের মধ্যে বেরিয়ে এল এক বিশেষ খবর যেখানে জানতে পারা গেছে শান্তিপুরের লক্ষীতলা মুচিপাড়া স্ট্রিটের শঙ্খ দে নামক এক বাসিন্দা এই করোনাভাইরাসকে রুখতে অত্যাধুনিক পদ্ধতিতে একটি হ্যান্ড গ্লাভস বানিয়ে ফেলেছে

শঙ্খ দে নামক এই ব্যক্তিটি বর্তমানে কল্যাণীতে জেআইএস কলেজের ইলেক্ট্রিক্যাল ইঞ্জিনিয়ারের প্রথম বর্ষের ছাত্র,আর এই ছেলেটি ছোটবেলা থেকেই বিজ্ঞানের প্রতি রয়েছে অসীম আগ্রহ যার দরুন ইতিমধ্যে বিজ্ঞানভিত্তিক মডেল বানিয়েছে বিজ্ঞান কর্মীদের সমীহ আদায় করে নিয়েছে এই মুহূর্তে করোনা ভাইরাস এর জেরে বেড়েছে মাস্ক হ্যান্ড গ্লাভসের চাহিদা শঙ্খ দে নামক এই ছাত্রটির ইলেকট্রনিক্স এন্ড কমিউনিকেশন ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের প্রধান ডক্টর বিশ্বরূপ নিয়োগীর সাথে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অত্যাধুনিক মানের হ্যান্ড গ্লাভস বানিয়ে তাক লাগিয়ে দিয়েছে গোটা দেশে

তার বানানো এই হ্যান্ড গ্লাভস এর মধ্যে থাকবে স্যানিটাইজার ব্যবস্থা অর্থাৎ গ্লাসের মধ্যে পাইপের মাধ্যমে নির্দিষ্ট স্থানে পৌঁছে যাবে নির্দিষ্ট মাত্রার অ্যালকোহল যার মাধ্যমে হয়ে যাবে সেই হ্যান্ড গ্লাভস স্যানিটাইজারবাজারে সাধারণত যেসব হ্যান্ড গ্লাভস গুলি পাওয়া যায় সেগুলি একবার ব্যবহারযোগ্য তার খরচের পরিমাণ অনেকগুণ বেশি তাই শঙ্খ দে এর আবিষ্কার করা হ্যান্ড গ্লাভস এর ফলে খরচ কমছে অনেকখানি, তাছাড়া নিজে নিজেই স্পর্শকৃত স্থানটি স্যানিটাইজ হয়ে যাচ্ছে

এরকম এক অত্যাধুনিক হ্যান্ড গ্লাভস বানাবার জন্য ইতিমধ্যে একটি সংস্থা তরফ থেকে তাকে পুরস্কার দেওয়া হয়েছে 1000 ডলার এই বিষয়ে যখন সংবাদমাধ্যমে তরফ থেকে শঙ্খ কে প্রশ্ন করা হয় তখন সে জানায় তার বানানো এই হ্যান্ড গ্লাভসগুলি এবার সে বাজারজাত করার জন্য পেটেন্টের আবেদন করেছে আর সেটা উৎপাদনের সরকারি সংস্থা অথবা কোন সংস্থা আর্থিক সহযোগিতার অপেক্ষায় রয়েছে এর পাশাপাশি তার এই আবিষ্কার কে যারা সংবাদ- মাধ্যমে উপস্থাপিত করেছিল তাদেরকে অসংখ্য ধন্যবাদ জানিয়েছে

SHARE THIS

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.