Tuesday, April 21, 2020

আক্রান্তদের দ্রুত চিহ্নিত করতে শহর ও গ্রামে বাড়ি বাড়ি নজরদারির সিদ্ধান্ত



করোনা সংক্রমণ রুখতে এবার পূর্ব বর্ধমান জেলায়  বাড়ি বাড়ি নজরদারি চালানোর পরিকল্পনা নেওয়া হল।করোনা আক্রান্তদের দ্রুত চিহ্নিত করতেই এই উদ্যোগ নেওয়া হচ্ছে। খুব তাড়াতাড়ি এই কাজে নেমে পড়ার নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। সেই সঙ্গে করোনার উপসর্গ নিয়ে যাঁরা ভর্তি হচ্ছেন তাঁদের দ্রুত পরীক্ষা করার ব্যাপারে তৎপরতা বাড়ানোর বিষয়েও জোর দেওয়া হচ্ছে।

পূর্ব বর্ধমান জেলায় করোনা পরিস্থিতি কোন জায়গায় এবং তা নিয়ন্ত্রণের ব্যাপারে কী কী পদক্ষেপ নেওয়া প্রয়োজন সে ব্যাপারে রবিবার বর্ধমান সার্কিট হাউসে গুরুত্ব পূর্ণ বৈঠক হয়। সেই বৈঠকে পূর্ব বর্ধমান সহ পাঁচ জেলার দায়িত্ব প্রাপ্ত কোভিড নাইন্টিন নোডাল অফিসার রাজেশ সিনহা ছাড়াও জেলা শাসক বিজয় ভারতী, জেলা পুলিশ সুপার ভাস্কর মুখোপাধ্যায়, জেলার মুখ্য স্বাস্থ্য আধিকারিক প্রণব কুমার রায়সহ জেলা প্রশাসন, পুলিশ স্বাস্থ্য দফতরের আধিকারিকরা  উপস্থিত ছিলেন।

সেই বৈঠকে করোনা আক্রান্তদের দ্রুত চিহ্নিত করতে শহর গ্রামে বাড়ি বাড়ি নজরদারির সিদ্ধান্ত হয়।  করোনার উপসর্গ নিয়ে অসুস্থ থাকা পুরুষ মহিলাদের বাড়ি থেকে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে নিয়ে এসে দ্রুত পরীক্ষার ওপর জোর দেওয়া হয়েছে। সচিব রাজেশ সিনহা বলেন, সন্দেহভাজনদের চিহ্নিত করে রোগ নির্ণয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে। এছাড়াও যেখানে লেভেল ওয়ান লেভেল টু রোগীদের চিকিৎসা চলছে সেখানে চিকিৎসক নার্সদের যাতে কোনও রকম অসুবিধা না হয় তা দেখা হচ্ছে। রোগীরাও যাতে কোনও সমস্যায় না পড়েন তা নিশ্চিত করতে বলা হয়েছে। বাড়ি বাড়ি নজরদারির জন্য শহর অঞ্চলে পুরসভা কর্তৃপক্ষ   গ্রামীণ অঞ্চলে ব্লক প্রশাসন কাজ করবে।

পূর্ব বর্ধমান জেলার খন্ডঘোষে এক ব্যক্তির দেহে করোনার সংক্রমণ মিলেছে। কলকাতা থেকে আসা ওই ব্যক্তির সংস্পর্শে এসেছিলেন খন্ডঘোষের অনেকেই। তাঁদের মধ্যে ৩১ জনকে চিহ্নিত করে কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে পাঠানো হয়েছে। মুর্শিদাবাদের সালারের করোনা আক্রান্ত প্রৌঢ়ের সংস্পর্শে এসেছিলেন বর্ধমান মেডিকেল কাটোয়া মহকুমা হাসপাতালের ডাক্তার নার্স স্বাস্থ্য কর্মী সহ ষাট জন। তাঁদের দেহে করোনার সংক্রমণ রয়েছে কিনা তা জানতে তৎপরতা বাড়িয়েছে প্রশাসন। তাঁরা সকলেই এখন জেলার বিভিন্ন কোয়ারেন্টাইন সেন্টারে রয়েছেন।

SHARE THIS

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.