Monday, April 20, 2020

কোন কোন কাজের জন্য ছাড় মিলবে ? দেখে নিন এক নজরে .....



নকরোনা ভাইরাসের প্রকোপ থেকে মানুষকে বাঁচাতে দেশজুড়ে চলছে লকডাউন জরুরি পরিষেবা ছাড়া বাকি সমস্ত কাজ পরিষেবা বন্ধ রাখা হয়েছে প্রথম পর্যায়ে ১৪ এপ্রিল পর্যন্ত লকডাউনের ঘোষণা করা হয়েছিল কিন্তু পরিস্থিতি দেখে সেটি মে পর্যন্ত বাড়ানো হয়েছে তবে লকডাউনের দ্বিতীয় পর্যায়ে বেশি ক্ষেত্রে কাজ শুরু করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে যাতে দেশের আর্থিক অবস্থার কিছুটা উন্নতি হয় সোমবার বেশ কিছু সেক্টরে কাজ শুরু করে দেওয়া হচ্ছে

এই সংক্রান্ত কেন্দ্র সরকারের তরফে একটি লিস্ট জারি করা হয়েছে তবে তাতে পরিষ্কার জানিয়ে দেওয়া হয়েছে যে সমস্ত জায়গা হটস্পট হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে সেখানে কোনও কাজ শুরু করা যাবে না

কোন কোন কাজের জন্য ছাড় মিলবে ? দেখে নিন এক নজরে .....
গ্রামীণ এলাকায় কো-অপারেটিভ সোসাইটি ব্যাঙ্কিং ছাড়া অন্যান্য আর্থিক সংস্থাগুলিকে ন্যূনতম স্টাফ নিয়ে অপারেট করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে এর পাশাপাশি গ্রামীণ এলাকায় নির্মাণ কাজে ছাড় দেওয়া হয়েছে জলের সাপ্লাই, বিদ্যুৎ, কমিউনিকেশনের সঙ্গে যুক্ত কাজে লকডাউনে ছাড় দেওয়া হয়েছে সরকারে তরফে বাঁশ, নারকেল, সুপারি, কোকো মশলার চাষ, প্রোসেসিং, প্যাকেজিং, বিক্রির পাশাপাশি লেনদেনেও ছাড় দেওয়া হয়েছে

আজ থেকে কী কী কাজ শুরু হবে ?
. ফল সবজির ঠেলা গাড়ি, পরিষ্কার করার জিনিস বিক্রি করে এমন দোকান খুলে যাবে
. রেশনের দোকান, ডেয়ারি মিল্ক বুথ, পোল্ট্রি, মাংস মাছের দোকান
.ইলেক্ট্রিশিয়ান, প্লাম্বার, মোটর মেকানিক, কারপেন্টার, ক্যুরিয়র, ডিটিএইচ কেবল সার্ভিস
. -কমার্স সংস্থাগুলিও ২০ এপ্রিল থেকে কাজ শুরু করতে পারবে তবে ডেলিভারির জন্য যে গাড়ি ব্যবহার করা হবে তার জন্য বিশেষ অনুমতি নিতে হবে
. কেবল সরকারি গতিবিধির জন্য যে ডেটা কল সেন্টার কাজ করে সেগুলি খুলে যাবে
. আইটি এবং এর সঙ্গে যুক্ত পরিষেবা তবে ৫০ শতাংশ স্টাফ নিয়ে কাজ করতে হবে .এর পাশাপাশি গ্রামে ইট ভাটা ফুড প্রোসেসিং ইন্ডাস্ট্রি কাজ করা শুরু করে দেবে .কোল্ড স্টোরেজ ওয়ারহাউজ কাজ করা শুরু করে দেবে . ফিশিং অপারেশন চলবে

SHARE THIS

Author:

Etiam at libero iaculis, mollis justo non, blandit augue. Vestibulum sit amet sodales est, a lacinia ex. Suspendisse vel enim sagittis, volutpat sem eget, condimentum sem.