পাকরাষ্ট্রে নেই লকডাউন, করোনায় উদাসীন অবস্থায় নির্বাসনে আক্রান্তরা - Nadia24x7

Breaking

Home Top Ad

Post Top Ad

Friday, March 27, 2020

পাকরাষ্ট্রে নেই লকডাউন, করোনায় উদাসীন অবস্থায় নির্বাসনে আক্রান্তরা



করোনা নিয়ে যখন সারা বিশ্ব আতঙ্কের মধ্যে দিন কাটাচ্ছে, তখন পাকিস্তানের দিকে তাকিয়ে দেখলে দেখা যাবে, তাদের কাছে করোনা কিছুই না। কারণ তারা এই রোগ নিয়ে উদাসীন। তাদের গায়েই লাগছে না, এই রোগ যে একটা সময় পাকিস্তানের মধ্যে মহামারীর আকার ধারণ করে ফেলতে পারে, এটা নিয়ে তাদের কোনো চিন্তাই নেই। আমরা দেখেছি যে দেশ যেমনই হোক না কেনো। এই মূহুর্তে তারা কিন্তু যথেষ্ট সজাগ। তারা এখন সব দিকেই নজর রাখছে।

কিভাবে মানুষকে ঘরে আটকে রেখে রোগের সমাধান করা যায়, এই সব নিয়ে সব দেশ মাথা ঘামাচ্ছে। কিন্তু সেই দিক থেকে পাকিস্তান। তাদের দেশে নেই কোনো লক ডাউন সিস্টেম, নেই কোনো চিকিতসাগত কোনো পরিকাঠামো। তারা এখন ভরসা করে আছে তাদের আল্লাহের ওপরে। তাদের মতে নাকি তাদের দেশের করোনা নাকি সাড়াবে আল্লাহ।

কিন্তু সেদিক থেকে বিচার করে ভারতের দিকে লক্ষ্য করলে দেখা যাবে, যত মৌলবী আছে তারা কিন্তু ভারতের সব মুসলিমদের আর্জি করেছে, তারা যেনো জমায়েত না করে, তারা যেনো বাড়ির থেকেই নামাজ পরে। কিন্তু পাকিস্তানে জমায়েত করে তারা নামাজ পরে যাচ্ছে। বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন এই করোনার ভায়াক্সিন এখনও বাজারে আসে নি, তাই এর অষুধ এখন একটাই জমায়েত না করা। কিন্তু কে শোনে কার কথা। তারা তাদের মতো কাজ করেই যাচ্ছে।

এখন পাকিস্তানের করোনা কারান্তের সংখ্যা ১২৩৫ জন। কিন্তু তাদের সেটাতে কোনো ধরনের ভ্রুক্ষেপ নেই। তারা তাদের মতো জমায়েত করেই যাচ্ছে। তারা এখন এমন পরিস্থিতিতে আছে যে, কি হয় হোক অন্যদের হোক, আমাদের কিছু না হলেই হল। পাকিস্তানের ইতিহাসে যদি দেখা যায়, তাহলে দেখা যাবে সব থেকে বেশী সুনাম পেয়েছে পাকিস্তানের ক্রিকেট শাস্ত্রীয় সঙ্গীত। আর সব থেকে বেশী বদনাম, হয়েছে পাকিস্তানের পরিকাঠামো, পাকিস্তানের প্রশাসন

পাকিস্তান এই করোনা মোকাবেলায় মোট কথা কোনো ধরনের সিদ্ধান্ত নিচ্ছে না, এদিকে সারা বিশ্বে এখন লক ডাউন চলছে, কিন্তু পাকিস্তানের সেইসবের কোনো নাম গন্ধ নেই। ইমরান খান এখন লক ডাউন নিয়ে কোনো কিছুই বলতে নারাজ। বিশ্বের এতো উন্নত দেশ লক ডাউনের আদেশ দিয়ে দিয়েছে, আর এদিকে পাকিস্তান এখনও স্বাভাবিকভাবেই দিন যাপন করছে।

এটা কখনই একটা দেশের পক্ষে ভালো লক্ষণ নয়, এই মূহুর্তে। এটা যে দেশের মানুষের জন্য বিপদ ডেকে আনছে সেটা স্পষ্ট। আরও অনেক কিছুই আছে যা, হয়ত বললে শেষ হবে না। এদিকে পাকিস্তানের চিকিৎসা ব্যবস্থাও সেই রকম উন্নত পর্যায়ের কিছু না। পাকিস্তানের একটি ২৬ বছরের ডাক্তার মারা গেলো করোনা আক্রান্তে, কিন্তু তাতেও কোনও ভ্রুক্ষেপ নেই সেই দেশের সরকারের।



Post Bottom Ad