ক্যান্সারে মৃত্যু পুত্রের, শেষকৃত্য করার সামর্থ্য নেই, এগিয়ে এলেন থানার ওসি - Nadia24x7

Breaking

Home Top Ad

Post Top Ad

Sunday, March 22, 2020

ক্যান্সারে মৃত্যু পুত্রের, শেষকৃত্য করার সামর্থ্য নেই, এগিয়ে এলেন থানার ওসি


ছয় বছর ধরে দুরারোগ্য ব্লাড ক্যান্সারের ভুগছিল ছেলে অভিজিৎ মন্ডল l ছেলেকে বাঁচানোর জন্য বাড়িটুকু পর্যন্ত বেঁচে দিয়েছেন বাবা দুখিরাম মন্ডল  সম্পূর্ণ নিঃস্ব বনে গিয়েও শেষপর্যন্ত বাঁচাতে পারেননি নিজের ছোট ছেলেকে l মৃত্যু তাকে কেড়ে নিল বাবা-মায়ের কাছে থেকে  যদিও তাতেও দুখিরামের দুঃখ ঘুচলো না 

ছেলের মৃতদেহ কীভাবে করবেন সৎকার, হাতে যে কিছুই নেই  কিছু সাহায্য পাওয়ার আশায় নদীয়ার কৃষ্ণগঞ্জ থানার থানাপাড়া এলাকার বৃদ্ধ দুখিরাম মন্ডল ছুটেছিলেন বিডিও অফিস এবং পঞ্চায়েত অফিসে  কিন্তু শনিবার দুটি অফিসই ছিল বন্ধ  সাহায্য তারা পাননি শেষপর্যন্ত l কীভাবে, কার সঙ্গে তারা দেখা করবেন, বুঝে উঠতে পারেননি 

তাই শেষ পর্যন্ত ছেলের মৃতদেহ সৎকারের জন্য খরচ যোগাড় করার উদ্দেশ্যে ভেবেছিলেন কৃষ্ণগঞ্জ হাই স্কুলের সামনে রাস্তার পাশে ছেলের মৃতদেহ রেখে ভিক্ষা করবেন  কিন্তু উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা থাকার কারণে তাও করে উঠতে পারেননি তারা  কান্নায় দুচোখ ভেসে যাচ্ছিল বৃদ্ধ দুঃখীরাম মন্ডল এবং তার স্ত্রী পারুল মন্ডলের  ঠিক সেই সময় ভগবানের মতোই তাদের কাছে এসে দাঁড়ালেন কৃষ্ণগঞ্জ থানার ওসি রাজ শেখর পাল  তিনি তুলে দিলেন দুখিরাম মন্ডলের ছোট ছেলে অভিজিৎ মন্ডলের মৃতদেহ সৎকারের খরচ  হাতে যেন চাঁদ পেলেন তারা l ভাবতেই পারেননি, এমন পুলিশও আছে 

ছেলের মৃতদেহ নিয়ে সৎকার করতে যান তারা l যদিও যাওয়ার আগে ছেলের পারলৌকিক ক্রিয়ার খরচ জোগাড় করার চিন্তা যখন চেপে বসছিল মাথায়, তখনই রাজশেখর পাল তাদের জানিয়ে দেন, সেই খরচও তিনি যোগাবেন l বৃদ্ধ হলেও দুখিরাম মন্ডলের দুহাত মাথায় ঠেকিয়ে যেন প্রণাম সারলেন  কাকে প্রণাম করলেন, তিনিই জানেন 

তবে সেই প্রণাম যে ভগবানের উদ্দেশ্যে, তা তো বলাই বাহুল্য  হয়তো দিন এদিন তিনি জীবন্ত রূপ দর্শন করলেন ভগবানের  চারিদিকে যখন করোনা ভাইরাসের আতঙ্ক চেপে বসেছে সমাজ থেকে প্রশাসনে। তারই মধ্যে এমন সমাজকল্যাণমূলক কর্মকাণ্ড করে সকলের প্রশংসা আদায় করে নিলেন তিনি। এমন পুলিশ অফিসারই তো চাই আমরা জানালেন গ্রামবাসীরাও।

Post Bottom Ad